/ / পদদলিত অন্নদাতাদের নিয়ে একুশের প্রবেশ – সুতপা ভট্টাচার্য চক্রবর্তী

পদদলিত অন্নদাতাদের নিয়ে একুশের প্রবেশ – সুতপা ভট্টাচার্য চক্রবর্তী

শেয়ার করুন

সারাদেশ কৃষিবিলের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু কৃষকরা কীভাবে লড়াই করে যাচ্ছে জানেন? ফাঁকা মাঠ, সামান্য কিছু কাপড়ের তাঁবু কোথাও খাটানো হয়েছে, কোথাও আবার ট্রাক্টরেই ঘরসংসার তুলে এনেছেন পাঞ্জাবের, হরিয়ানার, উত্তরপ্রদেশের, রাজস্থানের কৃষক। সেই ট্রাক্টরের সংসারে জলকামানের আক্রমণ। ভেঙেচুরে যাচ্ছে ঘর। পুলিশের লাঠিপেটা, ঠান্ডায় কাঁপতে কাঁপতে মরে যাওয়া—কিছুতেই দমানো যাচ্ছে না কৃষককুলকে। তার দাবি না মেটা পর্যন্ত এ আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার শপথ নিয়েছে কৃষকেরা।

নতুন বছরের প্রথম দিনটিতে কৃষক বাঁচাও ভারত বাঁচাও শপথ নিতে দেশবাসীর কাছে আবেদন জানাল সারা ভারত কৃষক সংগ্রাম সমন্বয় সমিতি। আন্দোলনরত কৃষকদের তরফে সোমবার এক বিবৃতিতে দেশের সমস্ত কৃষক, শ্রমিক, যুবক, মহিলা, আদিবাসী, সংখ্যালঘু, দলিত সংগঠন, মানবাধিকার সংগঠন ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের উদ্দেশে বলেন, দিল্লির লাগাতার কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে এবং কেন্দ্রের তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে ১ জানুয়ারি দেশজুড়ে শপথ গ্রহণ করুন।

আন্দোলনরত সংগঠনের ওয়ার্কিং গ্রুপের পক্ষে অশোক ধাওয়ালে এবং হান্নান মোল্লার আবেদন ১ জানুয়ারি দেশের সব প্রান্তে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ভারতের সংবিধানের প্রস্তাবনার প্রতিটি লাইন পাঠ করুন। প্রস্তাবনা পাঠের সময় মুষ্টিবদ্ধ হাত ঊর্ধ্বে তুলে ধরুন। তারপর নির্ধারিত শপথ গ্রহণ করুন। জাতীয় পতাকা এবং সংগঠনের নিজস্ব পতাকা নিয়ে এই অনুষ্ঠানে যোগ দিন। লাউডস্পিকার ব্যবহারের অনুমতি না মিললেও হ্যান্ড মাইক ব্যবহার করুন। বেলা বারোটা থেকে বিকেল চারটের মধ্যে প্রতিটি গ্রাম, শহর, ব্লক এবং জেলাকেন্দ্রে শপথ অনুষ্ঠানের গণজমায়েত করুন।

শপথের বয়ান হবে—আমরা শপথ নিচ্ছি, ভারতের সংবিধানের প্রস্তাবনা বাস্তবায়নে সর্বশক্তি নিয়োগ করব।
আমরা শপথ নিচ্ছি আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামী এবং চলতি কৃষক আন্দোলনের শহীদদের আত্মত্যাগ থেকে প্রেরণা নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের তিন কৃষি আইন প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত এই সমর্থন চালিয়ে যাব।

আমরা শপথ নিচ্ছি কর্পোরেটের হাত থেকে আমাদের কৃষক, কৃষিক্ষেত্র এবং গ্রামকে বাঁচাতে লড়াই চালিয়ে যাব। দেশের খাদ্য নিরাপত্তা এবং স্বনির্ভরতা রক্ষার লড়াই চালিয়ে যাব।

আমরা শপথ নিচ্ছি তিন কৃষি আইন ও বিদ্যুৎ সংশোধনী বিল প্রত্যাহার এবং সব কৃষিপণ্যের ৫০শতাংশ হিসেবে ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ফসল সংগ্রহ নিশ্চিত করার আইন বাস্তবায়িত করার জন্য আত্মত্যাগে সবসময় প্রস্তুত থাকব। আমরা বিশ্বাস করি ভারতের কৃষকরা বাঁচলেই কেবল ভারত বাঁচবে এবং শক্তিশালী হবে।

কৃষি বাঁচাও, কৃষক বাঁচাও, দেশ বাঁচাও—এই আহ্বানে কলকাতা থেকে শুরু হল সারা ভারত কৃষক সংগ্রাম জাঠা…

আন্দোলনরত কৃষকদের পক্ষ থেকে এআইকেএসসিসি এক বিবৃতিতে দেশের কৃষক শ্রমিক যুবক মহিলা আদিবাসী সংখ্যালঘু ও বহুজন সংগঠন এবং মানবাধিকার সংগঠনের কাছে আবেদন রাখা হয়েছে।
যার মাধ্যমে তাদেরকে জানানো হয়েছে, দিল্লিতেে লাগাতার কৃষক আন্দোলন এবং তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে পয়লা জানুয়ারি শপথ গ্রহণ করা হবে। এআইকেএসসিসি ওয়ার্কিং গ্রুপের পক্ষ থেকে হান্নান মোল্লা এবং অশোক ধাওয়ালে আবেদন রেখেছেন।

এজন্য দেশের বিভিন্ন প্রান্তে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান পালন করা হবে। জাতীয় পতাকার পাশাপাশি সংগঠনের নিজস্ব পতাকা নিয়ে এই শপথ কর্মসূচি করা হবে বলে জানানো হয়েছে। সেখানে শপথ নেওয়ার সময় বলা হবে, কর্পোরেটদের হাত থেকে কৃষক, কৃষিক্ষেত্র ও গ্রামকে বাঁচাতে লড়াই চালিয়ে যাওয়া হবে।

শেয়ার করুন

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *